মসজিদে আয়েশা(রা:) এর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বাদল..

পবিত্র রমজান মাসেও মির্জা মিথ্যাচার করে যাচ্ছে। তার মিথ্যাচারের কাছে কেউ নিরাপদ নয়। একজন ধর্মপ্রাণ মুসলমান হয়ে মিথ্যা বলা, তাও আবার পবিত্র রমজান মাসে! বিচার আপনারা করুন।

সোমবার(৩ এপ্রিল) সকাল ১০টায় চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডে মসজিদে আয়েশা(রা:) এর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের সময় তিনি এ কথাগুলো বলেন।

মিজানুর রহমান বাদল বলেন, কাদের মির্জা নাকি শুক্রবারে ঘরে বসে জুমার নামাজ পড়ে। তিনি স্থানীয়দের উদ্দেশ্য করে বলেন, বাড়িতে বসে জুমার নামাজ পড়া যায়?

কাদের মির্জার অসংলগ্ন কথার সমালোচনা করে বাদল বলেন, তার বক্তব্য চলাকালে মাগরিবের আজান দেয়াও নাকি ষড়যন্ত্র ছিল।

বাদল বলেন, কাদের মির্জা আমাদের প্রিয় নেতা ওবায়দুল কাদেরের সমালোচনা করে বলেন, তার সন্তান নেই, সেজন্য আমার সন্তানের উপর হামলা হওয়ায় তার কোন অনুশোচনা নেই, দরদ নেই।

মিজানুর রহমান বাদল মির্জার এমন বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, আমাদের প্রিয় নেতা ওবায়দুল কাদের একজন মানবিক, জনদরদি ও কোমল হৃদয়ের মানুষ। অথচ এ উম্মাদ তার সমালোচনা করে বলছে, উনার নাকি দরদ নেই।

তিনি কাদের মির্জার উদ্দেশ্যে বলেন, ওবায়দুল কাদেরের যদি দরদ না থাকতো তাহলে আপনার অপকর্মের কারনে এতোদিনে আপনি আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হতেন।

মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আজম পাশা চৌধুরী রুমেল, স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদের সদস্য ফখরুল ইসলাম রাহাত, সাবেক ছাত্রনেতা হাসিব আহসান আলাল ও চরকাঁকড়া ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান আরিফসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ প্রমুখ।