পরিবারের সদস্যদের জীবনের ঝু্ঁকিকে উপেক্ষা করে অবিরত ছুটে চলা দুই অকুতোভয় পুলিশ অফিসার

 

প্রশান্ত সুভাষ চন্দঃ
=============
কোম্পানীগঞ্জ থানাকে যদি একটি পরিবার ধরি, তাহলে বলতে হয়, সেই পরিবারের অধিকাংশ সদস্যের জীবনের ঝু্ঁকিকে উপেক্ষা করে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবেলায় জনগণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে নিজের জীবন বাজি রেখে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন ঐ পরিবারের দুই অকুতোভয় অভিভাবক। উপজেলাব্যাপী জনসচেতনতার নেতৃত্ব দিয়ে তারা দেখিয়ে দিচ্ছেন দায়িত্ব কাঁধে থাকলে এবং কর্তব্যবোধ থাকলে সকল ভয়কে কিভাবে জয় করতে হয়। এটিই করে দেখাচ্ছেন নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ থানার চৌকস দুই পুলিশ কর্মকর্তা ওসি মো. আরিফুর রহমান ও ওসি (তদন্ত) মোঃ রবিউল হক।

থানায় কর্মরত অধিকাংশ পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরও তারা দমে যাননি। বরং নব উদ্যমে পালন করে যাচ্ছেন তাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব। জীবনযুদ্ধে আপোষহীন সাহসী সৈনিক অকুতোভয় এ দুই পুলিশ কর্মকর্তা। তাঁরা মাঠে-প্রান্তরে ছুটে চলা দুই বীর। রাত দিন চলছে তো চলছেই। তাদের এ চলা কোম্পানীগঞ্জের জনগণের কল্যাণে এক নিবেদিত যাত্রা। যখন মৃত্যুর মিছিলে কাঁপছে পুরো বিশ্ব। যখন ভয় আর আতঙ্ক নিয়ে চতুর্দিকে ছুটোছুটি। ঠিক তখনই ভয়কে জয় করে তারা ছুটে চলছেন অবিরত।

জনগণের উদ্দেশ্যে অনুরোধ করে তাঁরা বলেন, আপনারা নিজে বাঁচুন। পাশাপাশি অন্যকে বাঁচাতেও আপনাদের সহযোগিতা একান্ত কাম্য।

এই দুই কর্মকর্তা জনগনের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, ১৯৭১ সালের যুদ্ধ ছিল ঘর থেকে বের হয়ে পাকিস্তানি হানদার বাহিনীকে পরাস্ত করা। আর ২০২০ সালের এ যুদ্ধটা হলো ঘরে বসে থেকে করোনা নামক সংক্রমণব্যাধি থেকে নিজেকে রক্ষা করা। এটা মুক্তিযুদ্ধের মতো জীবন বাজির কোনো ঘটনা নয়। সচেতনতাই এ ভাইরাস থেকে মুক্তি পাওয়ার একমাত্র পথ। আসুন আমরা সকলে সচেতন হই। অকারনে ঘর থেকে বের হবোনা এ পণ করি।

আর্কাইভ