মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার…

পুলিশ সপ্তাহ’২০২০ উপলক্ষ্যে “মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে পুলিশ জনগণের আরো কাছে পৌছানোর জন্য এবং অপরাধ দমনে জনতার সহায়তা কামনায় এবং জনতার নিরাপত্তা বিধানে গণসচেতনতা বৃদ্ধি করতে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে “আপনার ওসি” কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। ‘‘কথা বলুন আপনার ওসির সাথে, সেবা নিতে পুলিশের দ্বারে নয়, জনগনের দ্বারেই আসছে পুলিশ’’ এমন অঙ্গীকার নিয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আরিফুর রহমান বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহন করেছেন। তার মধ্যে “আপনার ওসি” কার্যক্রমন একটি। এছাড়া “বিট পুলিশিং” নামে আরো একটি সেবা চালু করেছেন তিনি। যে কার্যক্রমে উপজেলার প্রত্যেকটি ইউনিয়নকে এক একটি বিট হিসেবে ভাগ করে প্রত্যেক বিটে একজন করে পুলিশ অফিসারকে দায়িত্ব দিয়ে পথসভা, সেমিনার ও গণসচেতনতা বৃদ্ধি কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

“আপনার ওসি” কার্যক্রমের মাধ্যমে স্থানীয়দের বক্তব্য শুনে তাৎক্ষনিক উত্তর ও সমাধান দিচ্ছেন কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান। উপজেলার বসুরহাট পৌরসভা থেকে “আপনার ওসি” কার্যক্রম শুরু হয়। উপজেলায় অপরাধ নির্মূলে এসব কর্মকান্ড পরিচালনা করতে তিনি প্রতিনিয়ত ছুটে যাচ্ছেন গ্রাম থেকে গ্রামে। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ঘুরে ঘুরে পথ সভা করছেন, বিভিন্ন স্থানে স্টল করে স্থানীয়দের অভিযোগ শুনছেন এবং তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহন করছেন। বিভিন্ন মসজিদে উপস্থিত হয়ে নামাজ পড়ে উপস্থিত মুসল্লিদের উদ্দ্যেশে অপরাধ দমনে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বক্তব্য রাখছেন। পাশাপাশি জনগনকে পুলিশি সেবা পেতে যাতে হয়রানির শিকার না হতে হয় সেজন্য দালাল মুক্তভাবে বিনা সংকোচে ওসির সাথে সরাসরি কথা বলে সেবা নেয়ার জন্য অনুরোধ করছেন। শুধু পথসভা, মসজিদে বক্তব্য আর স্টল করে স্থানীয়দের অভিযোগ শুনার মধ্যে তাঁর কর্মকান্ড সীমাবদ্ধ নেই। তিনি বিভিন্ন স্কুল কলেজে গিয়ে ছাত্রছাত্রীদের মাঝে ইভটিজিং ও মাদক বিরোধী বক্তব্য রেখেও বিশেষ ভূমিকা রেখে চলেছেন।

এ কার্যক্রমের মূল লক্ষ্য হলো সেবার মাধ্যমে পুলিশ ও জনগণের দূরত্ব কমিয়ে আনা। মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি করা। এ কার্যক্রমের মাধ্যমে অপরাধীদের বিষয়ে আরো বেশি তথ্য পাওয়া যাবে এবং অপরাধ নিয়ন্ত্রণে জোরালো এবং কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারবে পুলিশ এমনই বিশ্বাস তাঁর। “আপনার ওসি” কার্যক্রমে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিরাও সম্পৃক্ত থাকছেন। স্থানীয়দের মতে, একজন ওসি কতটুকু কর্মক্ষম হলে এত বেশী কর্মকান্ডের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখতে পারেন তা আরিফুর রহমানকে না দেখলে বিশ্বাস করা যাবে না। এ ছাড়াও কমিউনিটি পুলিশিং ব্যবস্থা জোরাদার ও নিয়মিত ওপেন হাউজ ডে কার্যক্রমও পরিচালনা করছেন তিনি । সম্প্রতি তিনি অসম সাহসিকতা দেখিয়ে ৩টি শিশুকে নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচিয়ে ইতিমধ্য কোম্পানীগঞ্জে মানবিকতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

এতোসব কার্যক্রম পরিচালনা করে তিনি ব্যাপক সাড়া পেয়েছেন এবং কোম্পানীগঞ্জে অপরাধ দমনে সফলতাও পাচ্ছেন। বিশেষ করে ডাকাতি প্রবণ এ উপকূলীয় এলাকায় ডাকাতি বন্ধে তার ভূমিকা প্রশংসনীয়। কোম্পানীগঞ্জ থানায় স্বল্প সময়ের মধ্যে পুলিশি টহল জোরদার করে বেশ কিছু দূর্ধর্ষ ডাকাত গ্রেফতার করে স্থানীয়দের ভূয়শী প্রশংসা কুড়িয়ে নিয়েছেন।