কোম্পানীগঞ্জে নকলে বাধা দেয়ায় শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন, পরিক্ষা বর্জন!

নুর উদ্দিন মুরাদ:

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সরকারি মুজিব কলেজের সমাজকর্ম বিভাগের শিক্ষক তানভির আহমেদের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে কলেজের শিক্ষক ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এদিকে হামলার প্রতিবাদে হামলাকারীদের দ্রুত শাস্তির দাবীতে দ্বাদশ শ্রেণীর প্রি টেষ্ট পরিক্ষা বর্জন করেছে কলেজের শিক্ষকরা।

১৪ সেপ্টেম্বর, শনিবার সকালে কলেজের মূল ফটকে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় মানববন্ধনে অংশ নেয় কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আশরাফ হোসেন, উপাধ্যক্ষ সেতারা আক্তার,শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ, বাংলা বিভাগের শিক্ষক নুর মোহাম্মদ,মোস্তফা হামেদী, ইসলামী ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক ফজলুল্লাহ ফারুকী রায়হান, জীববিজ্ঞান বিষয়ের শিক্ষক শিরিন জাহান,রসায়ন বিষয়ের শিক্ষক সঞ্জয় চক্রবর্তীসহ কলেজের সকল শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে সরকারি মুজিব কলেজের অধ্যক্ষ বলেন, আমাদের একজন শিক্ষকের উপর হামলা মানে সকলের উপর হামলা। আমরা হামলাকারীদের দ্রুত বিচার চাই। এছাড়াও যাতে ভবিষ্যতে কোন শিক্ষককে এমন পরিস্থিতিতে পড়তে না হয় সেজন্য সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিনের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

এ ব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন দুঃখ প্রকাশ করে জানান, আমরা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতমধ্যে সকল পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করেছি। হামলাকারীরা কবিরহাট কলেজের শিক্ষার্থী। আমি বিষয়টি জানার সাথে সাথে কোম্পানীগঞ্জ থানা এবং জেলা পুলিশ সুপারকেও জানিয়েছি যাতে দ্রুত হামলাকারীদের গ্রেফতার করে শাস্তির আওতায় নিয়ে আসে। এছাড়াও যাতে এইসব শিক্ষার্থী যারা শিক্ষদের সম্মান করতে জানে না তাদের ছাত্রত্ব বাতিল করা হোক।

উল্লেখ্য গত শুক্রবার(১৩ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টার সময় উপজেলার সরকারি মুজিব কলেজের প্রভাষক তানভীর আহমেদের উপর এই হামলার ঘটনা ঘটে। এই বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন হামলার শিকার ঐ শিক্ষক।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১২ সেপ্টেম্বর ডিগ্রী পাস কোর্স-২০১৮ এর তৃতীয় বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা চলকালীন সরকারি মুজিব কলেজ কেন্দ্রের দুই ছাত্রের কাছে নকল পাওয়ার কারনে উত্তরপত্র নিয়ে নেন দায়িত্বরত ঐ শিক্ষক। পরবর্তীতে ঐ দুই ছাত্র ক্ষুব্দ হয়ে পরীক্ষা শেষে কলেজের অফিস কক্ষের সামনেই তানভীর আহমদের উপর হামলা চালানোর চেষ্টা করে। এছাড়াও তারা ঐদিন রাত্রে তানভীর আহমেদের ভাড়া বাসার সামনে অবস্থান নেয়। শুক্রবার রাতে তানভীর আহমেদ উপজেলা মসজিদ থেকে এশার নামায পড়ে বের হলে অজ্ঞাত তিনজন যুবক মোটরসাইকেল যোগে এসে তানভীর আহমেদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়।

এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, “তানভীর আহমেদের অভিযোগের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এসআই আনোয়ারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।