পক্ষপাতিত্ত্বের অভিযোগ এনে কোম্পানীগঞ্জে নিয়োগ পরীক্ষা বর্জন করেছে পরীক্ষার্থীরা

প্রশান্ত সুভাষ চন্দ :
=============
এটি লোক দেখানো পরীক্ষা। নিয়োগ কাকে দেবে সেটি আগেই নির্ধারণ করেছে নিয়োগ কমিটি। এমন অভিযোগ এনে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে একটি নিয়োগ পরীক্ষা বর্জন করেছে স্বয়ং পরীক্ষার্থীরা। আজ সকাল ১০টায় উপজেলার মাকসুদাহ সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নির্ধারিত পরীক্ষাটি হওয়ার কথা ছিল। সকল পরীক্ষার্থী উপস্থিতও হয়েছিল। কিন্তু পরীক্ষা শুরুর পূর্ব মূহুর্তে সকল পরীক্ষার্থী পরীক্ষা বর্জন করে চলে যায়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কোম্পানীগঞ্জের ৫নং চরফকিরা ইউনিয়নের চরফকিরা উচ্চ বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে লোক নিয়োগের জন্য দরখাস্ত আহব্বানের পর ২০ জন চাকরী প্রত্যাশি উক্ত পদে আবেদন করে। আজ ছিল নিয়োগ পরীক্ষা।

অভিযোগ রয়েছে নিয়োগ কমিটি পর্বেই তাদের পছন্দের প্রার্থীকে নিয়োগ দিবে এমন একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয়। বিষয়টি জানা জানি হলে আজ পরীক্ষার নির্ধারিত দিনে সকল পরীক্ষার্থী পরীক্ষার হলে উপস্থিত হলেও নিয়োগ কমিটির পছন্দের প্রার্থীকে রেখে অন্য সকল পরীক্ষার্থী চলে যায়।

এ পদে আবেদন কারী রোকন নামে এক প্রার্থী জানান, জহির নামে স্থানীয় একজন প্রার্থীকে নিয়োগ কমিটি অজ্ঞাত কারনে নিয়োগ দিবে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে আমরা বিশ্বস্ত সূত্রে খবর পেয়েছি। যেহেতু তাকে নিয়োগ দিবে সেহেতু আমরা এ লোক দেখানো প্রহসনের নিয়োগ পরীক্ষা বর্জন করে চলে এসেছি।

বিষয়টি নিয়ে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও চরফকিরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন লিটনের সাথে আলাপ করা হলে তিনি বলেন, এটি ভিত্তিহীন অভিযোগ। তবে পরীক্ষা না নেয়া বিষয়ে তিনি বলেন, পর্যাপ্ত পরীক্ষার্থী না থাকায় পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

এদিকে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: কামরুজ্জামান জানান, পরীক্ষা বর্জন করেনি। পরীক্ষার্থীরা উপস্থিত না থাকায় নিয়োগ কমিটি পরীক্ষা স্থগিত করেছে ।

বিষয়টি নিয়ে ডিজির প্রতিনিধি মাকসুদাহ সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা ফরিদা আক্তার খানমের সাথে আলাপ করলে তিনি জানান, সকল পরীক্ষার্থী উপস্থিত না থাকায় নিয়োগ কমিটি পরীক্ষা স্থগিত করেছে। পরবর্তীতে পরীক্ষা নেয়া হবে।

আর্কাইভ