আমার কোন উন্নয়ন,দল কেন্দ্রিক ছিল না উন্নয়ন ছিল সকল দলের মানুষের জন্য -ওবায়দুল কাদের

প্রশান্ত সুভাষ চন্দ :
==========
আমার কোন উন্নয়ন দল কেন্দ্রিক ছিল না। আমার উন্নয়ন ছিল সর্বস্তরের ও সকল দলের মানুষের জন্য। আমি আবারো নির্বাচিত হলে এ উপজেলাকে মডেল উপজেলায় রূপান্তরিত করবো। জননেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশের প্রত্যেকটি গ্রাম শহর হবে। আমরা নির্বাচিত হলে এ প্রতিশ্রতিও বাস্তবায়ন করবো। আমরা যা বলি তা করি। যা করতে পারিনা তা বলিনা। বাঙালীকে কলা দেখাইনা, মূলা দেখাইনা, হাইকোর্টও দেখাইনা। মনে রাখবেন ওয়াদা ভঙ্গকারীকে আল্লাহও পছন্দ করেনা। মন্ত্রীত্ব আর ক্ষমতা চিরদিন থাকে না। থাকে মানুষের কাজ, থাকে মানুষের ওয়াদা, থাকে মানুষের কীর্তি। আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াখালী-৫ আসনে আ’লীগ দলীয় প্রার্থী ওবায়দুল কাদের আজ সকাল ১০ টায় উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের কেটিএম হাট ও চরপার্বতী ইউনিয়নের চৌধুরী হাট বাজারে গণসংযোগকালে এ কথা গুলো বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাকে হুমকী দেয়া হচ্ছে এক ঘন্টার মধ্যে এলাকা থেকে তাড়িয়ে দিবে বলে। আমি উনাকে(মওদুদ) বলতে চাই, আামি বসন্তের কোকিল নয়। ভোট আসলে এলাকায় আসবো আর ভোট চলে গেলে এলাকা ছেড়ে চলে যাব। আমি শীতের অতিথি পাখি নয়। আমি এ এলাকার সন্তান। আমি ক্ষমতায় থাকলেও এ এলাকায় থাকবো। ক্ষমতা হারালেও এ এলাকায় থাকবো। হুমকী দিয়ে কোন লাভ হবে না। জনগণ আমার সাথে আছে। আপনার এ হুমকীর জবাব জনগন ৩০ তারিখে ব্যালটের মাধ্যমে দিয়ে দেবে। এসময় তিনি(কাদর) বলেন, আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। আমি আপনাদের কাছে এর বিচার চাই। ওবায়দুল কাদের উপস্থিত জনগণকে অভয় দিয়ে বলেন, আপনারা ভয় পাবেন না। সন্ত্রাসী দিয়ে রাজনীতি হয়না। রাজনীতি করতে হলে জনগণের ভালোবাসা ও সমর্থন লাগে।

সিরাজপুর ইউনিয়নের কেটিএম হাটে মওদুদ আহমদের বাড়ির দরজায় গণসংযোগকালে তাঁর (মওদুদ) সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি এখন আপনার বাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে এত লোকের সামনে কথা বলছি। দেখি আপনি আপনার বাড়ির সামনে এত মানুষ জড়ো করতে পারেন কিনা। পারবেন না। কারন এলাকার মানুষ জেগে গেছে। মানুষ কাজ চায়। মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দাতাকে আর দেখতে চায়না। তিনি(কাদের) উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, আমার ১২ বছরের উন্নয়ন আর উনার(মওদুদ) ২২ বছরের উন্নয়নের সাথে মিলিয়ে দেখেন। যদি আমার ১২ বছর উনার ২২ বছরের চাইতে ভালো হয় তাহলে আমি আপনাদের কাছে ভোট চাই।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনি(মওদুদ) ২০০১-২০০৬ পর্যন্ত আমার হাজার হাজার নেতাকর্মীকে এলাকা ছাড়া করেছেন। কিন্তু আমি নির্বাচিত হওয়ার পর এর কোন প্রতিশোধ নিইনি। আপনারা এলাকায় নির্বিঘ্নে রাজনীতি করে বেড়িয়েছে। অথচ এখন ভোটের সময় এসে আমার বিরুদ্ধে ঘরে বসে মিথ্যাচার করছেন। আপনি মিডিয়াকে লাগিয়ে দিয়ে ফরমায়েশি নিউজ করাচ্ছেন। মনে করেছেন এতে করে আমার জনপ্রিয়তা কমে যাবে। এসবে কোন লাভ হবেনা বলে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন,মওদুদ ভাই জনগণ আমার সাথে আছে, আপনার সাথে নয়।

গণসংযোগকালে ওবায়দুল কাদেরের সাথে ছিলেন, নোয়াখালী জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো: সাহাব উদ্দিন, জেলা আ’লীগের শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক নাজমুল হক নাজিম, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ’লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান, আ’লীগ নেতা ইস্কান্দার মির্জা শামীম, চরপার্বতী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন কামরুল ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জহিরুল ইসলাম তানভীরসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।

আর্কাইভ