গত ১০ বছরে এ সরকার গণতন্ত্র ও মানুষের ভোটের অধিকার হরণ করেছে-ব্যারিষ্টার মওদুদ আহমদ

প্রশান্ত সুভাষ চন্দ :

গত ১০ বছরে এ সরকার দেশের গণতন্ত্র ও মানুষের ভোটের অধিকার হরন করেছে। দেশের মানুষের উপর যে অন্যায় অত্যাচার করেছেন এর জবাবদিহি করতে হবে। নির্বাচনের পর এ অন্যায় অত্যাচারের বিচার করা হবে। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় বসুরহাট পৌরসভার সরকারী মুজিব কলেজ গেইটে পথসভার আলোচনায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও নোয়াখালী-৫ আসন থেকে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ব্যারিষ্টার মওদুদ আহমেদ এ কথা গুলো বলেন।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল হাই সেলিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পথসভার আলোচনা সভায় ব্যারিষ্টার মওদুদ আহমদ দলীয় নেতাকর্মীদেরকে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা জানিয়ে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ করে বলেন, আপনারা আমাদের বন্ধু, আমাদের ভাই। আপনারা আমাদের নেতাকর্মীদের প্রতি অন্যায় আচরণ করবেন না, তাদেরকে গ্রেফতার করবেন না। সরকার দলের সাথে যেরকম আচরণ করছেন আমাদের সাথেও একই রকম আচরন করবেন। এ সরকার যদি পূণরায় ক্ষমতায় যায়, তাহলে বেগম জিয়াকে বিষ খাইয়ে মেরে ফেলবে বলেও মওদুদ আহমদ মন্তব্য করেন। তিনি উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে এই বলে আহব্বান জানান যে, বেগম জিয়াকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য এবং তাঁর মুক্তির জন্য হলেও আপনারা ধানের শীষে ভোট দিবেন। দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা আমাকে ওয়াদা দিতে হবে যে, নির্বাচনের দিন আপনারা কাউকে কেন্দ্র দখল করতে দিবেন না। লড়াই করে হলেও ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে হবে।
মওদুদ আহমেদ তাঁর বক্তব্যে, ওবায়দুল কাদেরের উন্নয়নের সমালোচনা করে বলেন, এ আসনে বড় বড় যেসকল উন্নয়ন হয়েছে তার সবই আমার ক্ষমতার আমলে হয়েছে। ওবায়দুল কাদের আমার উন্নয়নের তুলনায় কিছুই করতে পারেননি। তবুও তিনি বড় বড় কথা বলেন। তিনি বলেন, আমি আবারো নির্বাচিত হলে এ আসনে আরো ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড করবো।
পথসভার আলোচনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা জামায়াতের আমীর অধ্যক্ষ বেলায়েত হোসেন, পৌর বিএনপির সভাপতি কামাল উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারী মাওলানা মোশারফ হোসেনসহ ছাত্রদল, যুবদল ও শিবিরের নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।