যে কারণে ড. কামালকে ব্যবহার করছে বিএনপি

নিউজ ডেস্ক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ নয় বরং বিএনপির পক্ষে সরকার বিরোধী আন্দোলনকে চাঙ্গা করতেই জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া নামক নতুন রাজনৈতিক জোট গঠন করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষক বিভুরঞ্জন সরকার। তার মতে, যেহেতু দেশের রাজনীতিতে ড. কামালের গ্রহণযোগ্যতা কম, তাই বিএনপির পক্ষ নিয়ে আন্দোলনের নামে সরকারের সাথে দরকষাকষি করে জাতীয় নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণের প্রেক্ষাপট তৈরি করার জন্যই মূলত কাজ করছেন ড. কামাল। তবে ড. কামালকে ব্যবহার করে বিএনপি যে রাজনৈতিক ফায়দা লুফে নেওয়ার পরিকল্পনা করছে সেটি শেষ সময়ে এসে ভেস্তে যেতে পারে।

বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে জানা যায়, ২০১৪ সালের নির্বাচনের পূর্বে সরকার পতনের আন্দোলনের নামে সারা দেশে জ্বালাও-পোড়াওয়ের রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতা করায় দেশ ও আন্তর্জাতিক মহলে বেশ বদনাম হয়েছে বিএনপির। দেশের অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করতে বিএনপি-জামায়াত সঙ্গবদ্ধভাবে সারা দেশে অধিকার আদায়ের আন্দোলনের নামে সাধারণ মানুষের উপর নির্যাতন চালায়। মূলত তাদের উদ্দেশ্য ছিল সরকারের পতন ঘটিয়ে ক্ষমতা দখল করা। বিএনপির আশা জনগণ তাদের সমর্থন জানিয়ে জ্বালাও-পোড়াওয়ে অংশ নেবে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে দেশবাসী তৎকালীন সময়ে বিএনপির ভীতিকর রাজনীতি ও কর্মসূচি প্রত্যাখ্যান করে। দেশের সম্পদ ধ্বংস, সাধারণ নাগরিক হত্যা করাসহ অরাজনৈতিক ও অমার্জনীয় অপরাধের জন্য সরকারের চোখে অপরাধী সাব্যস্ত হয় বিএনপি। ক্ষমতা দখল করার জন্য ন্যাক্কারজনক সব কর্মসূচির কারণে সরকারের সাথে দূরত্ব বৃদ্ধি পায় দলটির। এরপরও সরকার বিএনপিকে ক্ষমা করে দেশের উন্নয়নে অংশীদার হওয়ার আহ্বান জানায়। কিন্তু দলটির নেত্রী বেগম জিয়া ও তারেক রহমান সরকারের উপর প্রতিশোধ নিতে দেশে ও দেশের বাহিরে সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও গুজব ছড়াতে বরাবরই তৎপর। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় সরকারের সহযোগিতা ও সহমর্মিতা পেতেই ড. কামালকে দিয়ে বৃহত্তর রাজনৈতিক জোট গঠনের নামে দরকষাকষির চেষ্টা করছে বিএনপি।

এ প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুহাম্মদ সোহরাব হোসেন বলেন, ড. কামালকে নিয়ে স্বার্থ উদ্ধারের রাজনীতি করছে বিএনপি। সরকারের সাথে দূরত্ব কমিয়ে সংসদে ফিরে আসতেই তাদের এই জাতীয় ঐক্য গঠন। ড. কামাল নিজেও জানেন যে, তিনি নির্বাচনে অংশ নিলে জিততে পারবেন না। বরং তার জামানত বাজেয়াপ্তও হতে পারে। সুতরাং মিডিয়া হিসেবে দরকষাকষি করিয়ে দিয়ে বিশেষ ফায়দা লুটতে চেষ্টা করছেন ড. কামাল। ড. কামালকে তুরুপের তাস হিসেবে ব্যবহার করছে বিএনপি। ড. কামালের মতো শিক্ষিত, অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষ কিভাবে বিএনপির মতো একটি ক্ষমতালোভী ও সাম্প্রদায়িক শক্তির পক্ষে কাজ করছেন তা নিয়েও প্রশ্ন থাকছে।

শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন :