সিঙ্গাপুরে স্থায়ী হচ্ছে ড. কামাল

 

নিউজ ডেস্ক: সিঙ্গাপুরে স্থায়ী হচ্ছেন ড. কামাল। মঙ্গলবার ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে বি. চৌধুরীর বারিধারার বাসায় অনুষ্ঠিত যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতাদের বৈঠকের বরাতে এ তথ্যের নিশ্চয়তা পাওয়া যায়। উক্ত বৈঠকে জাতীয় ঐক্যের সব নেতাকর্মী থাকলেও উপস্থিত ছিলেন না ড. কামাল।

এ বিষয়ে কথা হয় আ স ম আব্দুর রবের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমরা জানি ড. কামাল হোসেন সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন। কিন্তু তিনি যে চিরস্থায়ীভাবে সেখানে বসবাস করবেন এই বিষয় আমাদের অনেকেরই জানা ছিলো না। আজ তার ওয়াটসআপ থেকে মেসেজ পেয়ে বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত হলাম।

‘বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য’-কে যৌথ নেতৃত্বে পরিচালনা এবং সমন্বয়হীনতা কাটাতে একটি কেন্দ্রীয় লিয়াজোঁ কমিটি গঠনের লক্ষ্যে বৈঠকটি হওয়ার কথা ছিল গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেনের বেইলি রোডের বাড়িতে। কিন্তু সন্ধ্যার পর বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয় বি. চৌধুরীর বাসায়। মূলত ড. কামালের বাসায় তালা মারা থাকার কারণে বি. চৌধুরীর বাসায় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। চিকিৎসার কথা বলে হুট করে সিঙ্গাপুরে যাওয়ার পর হুট করে সেখানে স্থায়ীভাবে থাকার চিন্তা করাটা নিতান্তই দুঃখজনক।

সূত্র জানায়, ড. কামাল হোসেনের দুঃসময়ে দেশ থেকে পালিয়ে যাওয়ার অতীত রেকর্ডই নেতাদের ভাবতে বাধ্য করছে। ঐক্যের নেতাদের সাথে আলাপ করতে গেলে কেউ মন্তব্য করতে চাননি।

উল্লেখ্য, আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরুর এক মাসও হয় নি ‘বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য’র। এই ঐক্য প্রক্রিয়ার সাথে আছেন ডক্টর কামাল হোসেনের গনফোরাম, বি চৌধুরীর বিকল্পধারা, জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব এবং তার স্ত্রী মিসেস তানিয়া রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণস্বাস্থ্য হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী এবং মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নিয়ন্ত্রিত বিএনপি।