বিএনপিকে বৃদ্ধদের খামার বলে আফসোস করলেন রিজভী আহমেদ

নিউজ ডেস্ক: ১লা অক্টোবর বিশ্ব প্রবীণ দিবস। সারা বিশ্বে একযোগে প্রবীণদের প্রতি যত্নবান হওয়ার বাণী নিয়ে পালিত হচ্ছে দিবসটি। বিশ্ব প্রবীণ দিবসে বাণী দেওয়া নিয়ে বাকবিতণ্ডায় লিপ্ত হয়েছে বিএনপি। বিএনপি মহাসচিব প্রবীণ দিবসে শুভেচ্ছা বার্তা দিয়ে দেশের প্রবীণ নাগরিকদের বিএনপির দিকে টানার চেষ্টা করলেও তারেকপন্থী নেতা রিজভী আহমেদের প্রবল বাধার মুখে বাণী দিতে পারেননি তিনি। রিজভী আহমেদের বক্তব্য হলো, প্রবীণ দিবসে বার্তা দিয়ে বুড়ো-বাতিল মালদের দলে না টেনে বরং তরুণ-নবীন নাগরিকদের জন্য নতুন চিন্তা-ভাবনা করার পরামর্শ দিলে মির্জা ফখরুলের সাথে তর্ক শুরু হয়।

সূত্র বলছে, রিজভীর মতে, প্রবীণ দিবসে শুভেচ্ছা বার্তা দিয়ে ভোট ভিক্ষা চাওয়া বিএনপির জন্য অসম্মানজনক এবং এটি করলে বিএনপির দুর্বলতা প্রকাশিত হবে। এছাড়া বিএনপি নিজেও বুড়োদের খামারে পরিণত হয়েছে। সুতরাং প্রবীণ দিবস নিয়ে মাথা না ঘামানোই ভালো হবে বিএনপির জন্য। এদিকে রিজভী আহমেদের এমন অহেতুক ও অযৌক্তিক মন্তব্যে চরম ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে প্রতিবন্দ্বী হিসেবে গালি দেন মির্জা ফখরুল।

নয়াপল্টন বিএনপি পার্টি অফিস সূত্রে জানা যায়, বিশ্ব প্রবীণ দিবস উপলক্ষ্যে শুভেচ্ছা বাণী দিয়ে একটি প্রেস ব্রিফিং করার পরিকল্পনা নিয়ে সকাল সকাল নতুন পাঞ্জাবী-পায়জামা পরে, আতর লাগিয়ে পার্টি অফিসে আসেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। নিজেও প্রবীণ হওয়ায় দিবসটি নিয়ে মির্জা ফখরুলের মধ্যে এক ধরণের চাঞ্চল্য ছিল। বৃদ্ধ-জ্ঞানী ভাব নিয়ে পার্টি অফিসের কনফারেন্স রুমে বসে মনের মাধুরী মিশিয়ে প্রবীণ দিবসের শুভেচ্ছা বাণী লিখছিলেন মির্জা ফখরুল। তার এমন জ্ঞানী ভাব দেখে পার্টি অফিসের স্থায়ী বাসিন্দা রিজভী আহমেদের মনে সন্দেহ সৃষ্টি হয়।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত যাত্রবাড়ী বিএনপি সহ-সভাপতি রুহুল আমিন মারফত জানা যায়, মির্জা ফখরুলকে লেখালেখি করতে দেখে এগিয়ে আসেন রিজভী।  কৌতুহলবশত প্রশ্ন করেন, কী লিখছেন ? রিজভীর এমন প্রশ্নে ক্ষেপে যান ফখরুল।  মির্জা ফখরুলের এমন সন্দেহজনক গতিবিধি লক্ষ্য করে জোরপূর্বক তার লেখাটি ছিনিয়ে নেন রিজভী।  এসময় বয়স্ক-বাতিল মালদের জন্য বিএনপির কোনো সমবেদনা নেই বলেও মন্তব্য করেন রিজভী আহমেদ। এমন কাজকর্ম করে বিএনপিকে বৃদ্ধ-প্রবীণদের দলে পরিণত করার জন্য তার কঠোর সমালোচনা করেন রিজভী আহমেদ।

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সরকার পতনের আন্দোলনে বয়স্ক-বৃদ্ধদের পরিবর্তে তরুণ-যুবকদের প্রয়োজন বলেও মন্তব্য করেন রিজভী। রিজভীর এমন মন্তব্যে ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে প্রতিবন্দ্বী বলেও গালি দেন মির্জা ফখরুল। দল চালাতে শুধু শক্তি নয় বুদ্ধিরও প্রয়োজন হয়, বুদ্ধির অভাবে আজ বিএনপির এমন অবস্থাও বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল। এসময় রিজভী আহমেদ তাকে বৃদ্ধ-বাতিল মালের প্রতিনিধি বলেও ব্যঙ্গ করেন। রিজভী আহমেদ মির্জা ফখরুলের এমন কৃতকর্মে বিএনপিকে বুড়ো-বাতিল মালের খামার বলে আফসোস করেন।