আওয়ামী লীগের সাঙ্গে হাত মেলাচ্ছে জাতীয় ঐক্যের একাংশ

নিউজ ডেস্ক : আসন্ন একাদশ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ড. কামাল, মাহমুদুর রহমান মান্না, বি. চৌধুরী, আ স ম আব্দুর রব ও কাদের সিদ্দিকীর সমন্বয়ে যে জাতীয় ঐক্য গঠিত হয়েছিলো, তার একাংশ আওয়ামী লীগের সঙ্গে হাত মেলাতে চাচ্ছে বলে একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে।

মঙ্গলবার ২ অক্টোবর দুপুরে রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের ৫১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যে আবেগে আপ্লুত হয়ে জাতীয় ঐক্যের কিছু নেতা ঐক্য ভেঙে আওয়ামী লীগে যোগ দেয়ার জন্য সম্মত হন তারা।

অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, আজকে একটি বিষয় ভালো লাগছে যে বামপন্থীরা এক সুরে কথা বলছেন। সেটি হচ্ছে সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে তাঁরা নেই। এই উচ্চারণ যারা করেছেন, আসুন না আমরা মিনিমাম পয়েন্টে ম্যাক্সিমাম ইউনিটি গড়ে ফেলি, অসুবিধাটা কোথায়?’

এ সময়ে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ‘কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃত্বাধীন আটদলীয় জোটের অনেকের সঙ্গে আমরা একসঙ্গে ছাত্ররাজনীতি করেছি। তাঁদের আদর্শের প্রতি আমার কোনো অশ্রদ্ধা নেই। এখানে মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু—এই প্রশ্নে আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ হই।’

ওবায়দুল কাদেরের এ কথায় আবেগে আপ্লুত হয়ে মাহমুদুর রহমান মান্না, আ স ম আব্দুর রব ও কাদের সিদ্দিকী ড. কামালের জাতীয় ঐক্য ছেড়ে আওয়ামী লীগের সঙ্গে জাতীয় ঐক্য গড়তে সম্মত হয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে কাদের সিদ্দিকী বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর সৈনিক। এছাড়া আব্দুর রব ও মান্নাও বঙ্গবন্ধুর সৈনিক। ওবায়দুল কাদেরের কথায় আমরা অভিভুত। তাই আমরা চাচ্ছি আওয়ামী লীগের সঙ্গে নতুন ভাবে জোট করে একটি দৃঢ় ঐক্য গড়ে তুলতে।

জাতীয় ঐক্যের একাংশের এ কথা রাজনীতিতে সুবাতাসের দুয়ার খুলেছে। ওবায়দুল কাদেরের এ কথায় রাজনৈতিক মঞ্চে উদারতা প্রকাশ পেয়েছে। এমন চলতে থাকলে বাংলাদেশের রাজনীতি বিশ্বের বুকে একটি গর্বিত উদাহরণ হয়ে থাকবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।