সমাবেশে গায়েবানা প্রধান অতিথি করে ক্ষুব্ধ তারেক

খালেদাকে ছাড়াই সম্পন্ন হলো বিএনপির সমাবেশ। ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ দুর্নীতি মামলার জন্য আটক করা হয় বেগম খালেদা জিয়াকে। সেই থেকে তিনি কারাবন্দি। কারাগারেই তিনি সম্পন্ন করেছেন বছরের দুটি ঈদ। এমনকি গুরুত্বপূর্ণ রাজশাহী, গাজীপুর ,বরিশাল ও সিলেটের নির্বাচন।

দলের অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে খালেদাকে ছাড়াই। এই ক্ষেত্রে সমাবেশে প্রধান অতিথি করা হয় খালেদা জিয়াকে। শুধু তাই নয় তাকে উদ্দেশ্য করে একটি চেয়ারও খালি রাখা হয়েছে। অপরদিকে খালেদা যে জেলে এই খবর দেশসহ দেশের বাইরের সবাই জানে। তাও তাকে উদ্দেশ্য করে মঞ্চে একটি চেয়ার খালি রাখা হয়েছে।

এসব কার্যকলাপে ক্ষুব্ধ হয়েছেন তার পুত্র তারেক। তারেকের মতে খালেদা জিয়া জেলে আছে এই খবর দেশের ও দেশের বাহিরের সবাই জানে। এই খবর জানার পরও কেন তাকে প্রধান অতিথি করা হলো এবং কেনই বা তার জন্য চেয়ার ফাঁকা রাখা হয়েছিল?

বিএনপির নেতাকর্মীগণ অনেকটা গায়েবানা প্রধান অতিথি হিসেবে খালেদাকে উদ্দেশ্য করেছেন। গায়েবানা অর্থ অনুপস্থিত। এই শব্দ আমাদের দেশে জানাজার ক্ষেত্রে বেশি ব্যবহৃত হয়। অর্থাৎ মৃত ব্যক্তিকে অনুপস্থিত রেখে জানাজা। তারেক মনে করেন যেই ব্যক্তি জেলে তাকে অনুপস্থিত রেখে প্রধান অতিথি করা অহেতুক।