তারেক রহমানের জন্য মঞ্চে চেয়ার না থাকায় রোষানলে মির্জা ফখরুল

নিউজ ডেস্ক: খালেদা জিয়ার মুক্তি, তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিত জনসেবায় খালেদা জিয়ার জন্য একটি ফাঁকা আসন রাখায় ক্ষিপ্ত হয়েছেন লন্ডনে পলাতক বিএনপি নেতা তারেক রহমান। খালেদা জিয়া জেলে থাকায় যদি তার জন্য চেয়ার রাখা হয় তবে লন্ডনে পলাতক অবস্থায় থাকা তারেক রহমানের জন্য মঞ্চে কেন চেয়ার বরাদ্ধ রাখা হয়নি, এমন বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে মির্জা ফখরুলকে তার বোকামির জন্য শাসিয়েছেন তারেক। এছাড়া তারেক রহমান জীবিত থাকতেও বিএনপিকে খালেদা নির্ভর দল হিসেবে প্রমাণ করার জন্য মির্জা ফখরুলকে রাগ করে অনুষ্ঠান ত্যাগ করারও আদেশ দিয়েছেন তারেক। কিন্তু খালেদা জিয়ার প্রতি ভালোবাসা ও দায়বদ্ধতার বিষয়টি মাথায় রেখে তারেক রহমানের আদেশ অমান্য করেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত রয়েছেন মির্জা ফখরুল।

লন্ডন বিএনপি নেতা আবদুল মালেক সূত্রে জানা যায়, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে ৩০ সেপ্টেম্বরের বিএনপির মহাসমাবেশটি সফল করার জন্য বিভিন্ন নেতাদের করা ফেসবুক লাইভ দেখছেন তারেক রহমান। অনুষ্ঠানের ভুল-ত্রুটিগুলো ধরিয়ে দিতেই তারেক ফেসবুকে লাইভ দেখছিলেন। এরই মধ্যে হঠাৎ করে মঞ্চে দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত বিএনপি নেত্রী বেগম জিয়ার জন্য ফাঁকা সিট দেখে মির্জা ফখরুলকে লন্ডন থেকে ফোন করেন তারেক। মঞ্চে খালেদার জন্য চেয়ার থাকলেও তার জন্য কেন চেয়ার বরাদ্ধ নেই, এমন প্রশ্ন করে মির্জা ফখরুলের কাছে জবাব চান তারেক। তারেক বলেন, বিএনপি কী শুধু বেগম জিয়ার সম্পদ? তারেক রহমান তাহলে কী বিএনপির কিছুই না? বিএনপি কী শুধু বেগম জিয়া নির্ভর দল? তাহলে তারেক রহমান বিএনপির জন্য কী বোঝা? তারেক রহমানের এমন সব যৌক্তিক প্রশ্নে খেই হারিয়ে ফেলেন মির্জা ফখরুল। মির্জা ফখরুল বুঝাতে চেষ্টা করেন খালেদা জিয়া এখনও বিএনপির প্রাণ। খালেদাকে ছাড়া বিএনপির কোন অস্তিত্ব নেই। তাছাড়া দলের জন্য তো জেলে আছেন খালেদা জিয়া। তার গায়েবি উপস্থিতি বুঝাতেই মঞ্চে তার নামে ফাঁকা চেয়ার রাখা হয়েছে। আর তারেক রহমান তো বিদেশে পলাতক। তাই তারেক রহমানকে বিএনপি খালেদা জিয়ার সমান মর্যাদা দিতে পারবে না। খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান দুজন দলের জন্য সমান নন। তারেককে অবশ্যই খালেদা জিয়ার অধীনেই থাকতে হবে। এছাড়া খালেদা জিয়াকে অসহায় অবস্থায় দেশে রেখে তারেক রহমান বিদেশে পালিয়ে যাওয়ার প্রতিবাদ হিসেবও খালেদা জিয়ার একাকিত্ব ও একক সংগ্রামের প্রতীক হিসেবেই মঞ্চে তার জন্য ফাঁকা চেয়ার রাখা হয়েছে। মির্জা ফখরুলের এমন কড়া সত্য শুনে চরম ক্ষিপ্ত হন তারেক রহমান। ভবিষ্যৎ নেতাকে বাদ দিয়ে জেলে থাকা নেত্রীর জন্য এমন মমতা দেখে বিরক্ত হয়ে তাকে মঞ্চ থেকে নেমে যাওয়ার আদেশ দেন তারেক। আর খালেদা জিয়ার প্রতি যদি এতই ভালোবাসা থাকে তাহলে খালেদার সাথে জেল খাটারও পরামর্শ দিয়ে ফোন কেটে দেন তারেক। এদিকে তারেক রহমানের অাদেশ অমান্য করে, মৃত্যুভয় নিয়ে খালেদা জিয়ার প্রতি ভক্তি ও ভালোবাস নিয়ে মঞ্চে অবস্থান করছেন মির্জা ফখরুল।