আল্লাহ-রাসুলের পর বঙ্গবন্ধুকেই নেতা মানি : খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা

বঙ্গবন্ধুর ডাকে ১৯৭১ সালে গর্জে উঠেছিল বাংলাদেশের স্বাধীনচেতা মানুষেরা। বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথেই নয় মাস রক্তক্ষয়ী স্বাধীনতা সংগ্রামের পর ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর অর্জিত বাংলাদেশের বিজয়। পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বেই স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয় হয়।

দল মত নির্বিশেষে সবকিছুর উপরে উঠে আসেন বঙ্গবন্ধু। মুজিবুর রহমান হয়ে উঠেন বাংলাদেশের ”বঙ্গবন্ধু”। লজ্জাজনক হলেও সত্য ‘৭৫ এর ১৫ আগস্ট পরবর্তী সময়ে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে প্রতিহিংসার রাজনীতি শুরু করে কিছু রাজনৈতিক দল- তাদের মধ্যে অন্যতম বিএনপি জামায়াত জোট। অসংখ্যবার বঙ্গবন্ধুকে খাটো করার অপচেষ্টা করেছে বিএনপি জামায়াত জোটের নেতারা। তবে এদের ভিড়েও একজন ব্যতিক্রম রয়েছেন। তিনি হলেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আইনজীবী ফজলুর রহমান।

আল্লাহ ও রাসুলের পর জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকেই নেতা মানেন বলে জানিয়েছেন ফজলুর রহমান। তিনি আরও বলেছেন, ‘আমি বেগম খালেদা জিয়ার সামনে দাঁড়িয়েও বলেছি মুক্তিযুদ্ধের ফাইনাল খেলার ক্যাপ্টেন বঙ্গবন্ধু, আর একথা মানতেই হবে।’

বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাতে চ্যানেল আইয়ের তৃতীয় মাত্রায় অংশ নিয়ে বিএনপি নেত্রীর উপদেষ্টা এসব কথা বলেন। ১৪ দলীয় জোট সরকারের শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশাও এতে অংশ নেন।

বিএনপির রাজনীতি করলেও বঙ্গবন্ধুকেই নেতা মানেন উল্লেখ করে ফজলুর রহমান বলেন, ‘আল্লাহ-রাসুলের পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নেতা মনে করি। এখনো মনে করি, শুধু তা নয়, বিশ্বাস করি তাঁর (বঙ্গবন্ধু) নেতৃত্বেই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। এর জন্য আমি এখন যে দল (বিএনপি) করি, সেই দল যদি তাড়িয়ে দেয়, তাহলে আমার কিছু করার নেই।’

ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনীতিতে আসেন ফজলুর রহমান। সংগঠনটির সভাপতিও ছিলেন। পরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিন দশকেরও বেশি সময়। ২০০৮ সালে জরুরি অবস্থার সময়কালে তিনি বিএনপির রাজনীতিতে যোগ দেন। বিএনপির সর্বশেষ কাউন্সিলে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা করা হয় সুপ্রিমকোর্টের এই আইনজীবীকে।

শেয়ার করুন: