একের পর এক আওয়ামী নেতা কর্মীদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করছে বিএনপি-জামায়াত

নিউজ ডেস্ক: বিএনপি-জামায়াতের সাইবার ইউনিটের কারণে আওয়ামী নেতাকর্মীরা ফেসবুক ব্যবহার করতে পারছে না বলে একাধিক সূত্র বরাত খবর এসেছে। সম্প্রতি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী মহিলা লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক রোকেয়া প্রাচী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের একান্ত সচিব সিরাজুল ইসলামসহ শত শত আওয়ামী নেতাকর্মীর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে।

মূলত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিএনপির মিথ্যা প্রচারণার বিরুদ্ধে যারাই সোচ্চার হচ্ছে তাদের অ্যাকাউন্ট গায়েব করে দিচ্ছে বলে জানিয়ে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ক্রাইম ডিভিশনের উপ-কমিশনার আলিমুজ্জামান বলেন, আমরা এ বিষয়ে বেশ উদ্বিগ্ন। বর্তমানে স্যোশাল মিডিয়ায় প্রচুর মিথ্যা সংবাদ প্রচারিত হচ্ছে। তবে দেখা যাচ্ছে এসব মিথ্যা সংবাদের প্রতিউত্তরে সত্য সংবাদ যারাই সাধারণ মানুষের সামনে উন্মোচন করছেন তাদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করা হচ্ছে।

এই হ্যাক বন্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে কি না? প্রতিবেদকের করা এমন প্রশ্নে উপ-কমিশনার বলেন, ফেসবুক আইডিগুলো কোন স্থান থেকে হ্যাক করা হচ্ছে। তা আমরা ইতিমধ্যে সনাক্ত করতে পেরেছি। দেখা যাচ্ছে প্রায় সকল আইডি আমেরিকা বা লন্ডন থেকে হ্যাক করা হচ্ছে। তবে যারাই হ্যাক করুক না কেনো তাদের বিরুদ্ধে খুব শিঘ্রই উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আওয়ামী লীগের কর্মী আব্দুস সাত্তার বলেন, বিএনপি সমর্থিত কিছু পেইজ যখন বিভিন্ন আন্দোলনকে কেন্দ্র করে মিথ্যা সংবাদ ও ছবি প্রচার করছিলো। তখন দেশের নাগরিক হিসেবে নিজ দায়িত্ব থেকে সাধারণ মানুষকে সঠিক তথ্য জানাতে আমি আমার ফেসবুক প্রফাইলটি ব্যবহার করি। কিন্তু কিছুক্ষণ পর আমার আইডিটি বন্ধ হয়ে যায়। যা ছিলো খুবি হতাশাজনক।

তথ্য সন্ত্রাস বর্তমান চরম পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। বর্তমানে মিথ্যা সংবাদ এমন ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে যে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন। বাকস্বাধীনতার নামে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করা উচিত নয়। আর যারা মিথ্যা সংবাদ প্রচার করছে তাদের বিরুদ্ধে কেউ সোচ্চার হলেই তাদের আইডি বন্ধ করছে কুচক্রী মহল। এসবের বিরুদ্ধে অতিসত্ত্বর ব্যবস্থা গ্রহণ করে অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানিয়েছে সুশীল সমাজ।