আসছে নির্বাচন, ফেসবুকে কর্মীদের চাঙ্গা করতে তারেকের ‘পর্নস্টার’ নীতি!

আসছে নির্বাচনের মাস। প্রতিটি রাজনৈতিক দলের মধ্যে ইতোমধ্যেই লক্ষ্য করা যাচ্ছে ব্যস্ততা। আওয়ামী লীগ সহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলো যখন তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত কর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করতে ব্যস্ত, তখন দীর্ঘদিন ঝিমিয়ে পড়া দল বিএনপি বেছে নিলো এক নোংরা পদ্ধতি। আর এর সমন্বয়কের ভূমিকায় আছেন লন্ডনে পলাতক তারেক রহমান। জানা যায়, ফেসবুকে নেতাকর্মীদের ধরে রাখতে লন্ডনে অবস্থানরত পর্নস্টারদের সাথে যুক্তি করছেন তারেক। তাদের কাজ হবে বিএনপির প্রধান ফেসবুক পেজ ব্যতীত অন্য যে ফেসবুক পেজগুলো আছে সেগুলোতে লাইভে যাওয়া। যাতে মাঠপর্যায়ের নেতারা অবৈধ যৌন সুখের লোভে ফেসবুকে যুক্ত থাকে!

লন্ডন সাংবাদিক সংস্থার বরাত দিয়ে একাধিক সংবাদ কর্মী এই সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করেন। পরবর্তীতে লন্ডন বিএনপির একাধিক নেতাকর্মীর সাথে যোগাযোগ করে জানা যায়, গত ৩ তারিখ রাতে লন্ডনে তারেক রহমানের সমাবেশ শুরু হওয়ার পূর্বে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান তারেক। জানা যায়, মূল অনুষ্ঠান শুরুর পূর্বে লন্ডনের শীর্ষ বিএনপি নেতাদের সাথে মিটিং চলাকালে এক নেতা তারেকের কাছে প্রশ্ন রাখেন, যেহেতু বর্তমানে ফেসবুক কেন্দ্রিক রাজনীতির প্রভাব বিস্তার- এ ক্ষেত্রে তারেক কি ভাবছেন। উত্তরে তারেক ওই নেতাকে জিজ্ঞেস করেন, ‘আমাদের অবস্থান কেমন যোগাযোগ মাধ্যমে?’ উত্তরে ওই নেতা বলেন, ‘তৃণমূল বিএনপি ফেসবুকে এক্টিভ না!’ শুনে তারেক জানান, ‘নেতাকর্মীদের ফেসবুকে রাখার ব্যবস্থা করছেন তিনি।’

এর পর দিনই জানা যায় পর্নস্টারদের সাথে তারেকের যোগাযোগের খবর। মোটা অংকের টাকার বিনিমিয়ে বিএনপির ফেসবুক পেজ এবং গ্রূপ গুলোতে লন্ডনের স্থানীয় পর্নস্টারদের লাইভ চাচ্ছেন তারেক। যাতে করে নির্বাচনের এই পূর্ব সময়ে চাঙ্গা থাকে বিএনপির অনলাইন সাইবার। এ ব্যাপারে জানতে চাওয়ার জন্যে ঢাকায় অবস্থানরত বিএনপি কার্যালয়ে যোগাযোগ করা হলে দলের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রিজভী এই ব্যাপারে জানেন না বলে জানান।

বিএনপির বেশিরভাগ ফেসবুক গ্রূপ ও পেজের পরিচালনার দায়িত্বে আছে ছাত্রদল। ছাত্রদল সভাপতি রাজীব আহসানের কাছে তারেকের এই সিদ্ধান্তের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমাদের ইন্টারনাল নীতির ব্যাপার এটি, আপনারা সময় হলেই জানতে পারবেন। তবে পরিবর্তন কিছু আসছে।’