ছাগলনাইয়ায় পল্লী বিদ্যুতের স্টেকারকে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিনিধি >>>
ফেনীর ছাগলনাইয়া পৌরসভার দক্ষিণ সতের এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের ডিডিসিএল শাখার স্টেকার মো. এরশাদুল হক মানিককে ৩ ফেব্রুয়ারী পিটিয়ে ও শ^াসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে দূবৃত্তরা।

ক্ষতিগ্রস্থ সূত্রে জানা যায়, পানি উন্নয়ন বোর্ডের পিকআপে করে ছাগলনাইয়ায় সকাল ১০টা এলএলপি লাইনের বিদ্যুত সংযোগের ডিজাইন করতে যান স্টেকার মো. এরশাদুল হক মানিক। দুপুর ১টা পর্যন্ত তাদের অফিসের কাজে অবস্থানের পর বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করে সাড়ে ৩ টার দিকে দক্ষিণ সতের রৌশন আলী মুন্সি বাড়ির সামনে একটি এলএলপিতে ঘর নির্মাণ করবে বলে ডিজাইন করতে বলে। অবৈধ ডিজাইন করতে মানিক অস্বীকৃতি জানালে পানি উন্নয়ন বোর্ডেও কনসালটেন্ট এর কর্মচারীদের সাথে বাক্-বিতন্ড হয়। একপর্যায়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঠিকাদার রফিকুল ইসলাম (৫০), এমদাদুল হক (৩০), মোস্তাফিজুর রহমান (৩৫) পল্লী বিদ্যুতের স্টেকার মানিকে কিল, লাথি, ঘুষি ও রড় দিয়ে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় তার পকেটে থাকা ৩ হাজার ৩শ টাকা, প্রায় ৮ হাজার টাকা মূল্যের সামসং গ্যালাক্্রি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। স্থানীয় এলাকাবাসী মারাতœক আহত অবস্থায় মানিককে উদ্ধার করে ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের নিয়ে যায়। ওইদিনই স্টেকার মো. এরশাদুল হক মানিক বাদী হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখ করে ৪জনকে অজ্ঞাত আসামী করে ছাগলনাইয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশ মামলা গ্রহণ করেনি।

পল্লী বিদ্যুতের ডিডিসিএল শাখার স্টেকার মো. এরশাদুল হক মানিক জানান, মারধর করার সময় তারা বলতে থাকে মামলা করলে আমাকে খুন করবে। ফেনীতে চাকুরী করতে দিবেনা।

এব্যাপারে ছাগলনাইয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু জাফর মো. সালেহ ঘটনায় অভিযোগ প্রাপ্তির তথ্য নিশ্চিত করেছেন।