ফেনীতে উৎসব মুখর পরিবেশে বই উৎসব অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি :
সারাদেশের ন্যায় ফেনীতেও উৎসব মুখর পরিবেশে বই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা, বর্ণিল আয়োজনে ও আনন্দঘন পরিবেশে সদর উপজেলার বালিগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত বই উৎসব অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ফেনী জেলা প্রশাসক মনোজ কুমার রায়।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি শুসেন চন্দ্র শীলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফেনীর পুলিশ সুপার এস.এম জাহাঙ্গীর আলম সরকার, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট পি কে এম এনামুল করিম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মামুন, ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশেদ খাঁন চৌধুরী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন বাহার, বালিগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক বাহার।

বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ইউছুপ, ফেনী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুব্রত নাথ, সাংবাদিক আবু তাহের, ওছমান হারুন মাহমুদ দুলাল, বালিগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।
এদিকে সদর উপজেলার গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে সোমবার সকালে বই উৎসব অনুষ্ঠানে বছরের প্রথম দিনে নতুন বই তুলে দেন ফেনীর সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী জাহান আরা বেগম সুরমা। নতুন বই পেয়ে আনন্দ-উচ্ছ্বাসে মেতে উঠে শিক্ষার্থীরা।

বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির বিদ্যুৎসাহী সদস্য এ কে শহীদ উল্যাহ খোন্দকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা ও পৌরসভার মহিলা কাউন্সিলর সেলিনা চৌধুরী সেলি।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়েরর প্রধান শিক্ষক জুলফিকার আলী। বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক শাহ আলমের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য ডা. বাহা উদ্দিন বাবলু, বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও সাবেক সভাপতি কবির আহাম্মদ, স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক জহিরুল ইসলাম প্রমুখ। এসময় বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

ফেনী জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. শফি উদ্দিন বলেন, ডিসেম্বরের আগেই আমরা জেলা প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাহিদার আলোকে বই সরবরাহ করেছি। একযোগে জেলার প্রতিটি শিক্ষার্থী বছরের প্রথম দিন নতুন বই হাতে পেয়েছে। এবার ফেনীতে ১ হাজার ১শত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৩৩ লাখ ৩৭ হাজার ৫শ’ ২৩টি বই বিতরণ করা হয়েছে।