ইউটিউব মানেই শুধু ভিডিও নয়

স্টাফ রিপোর্টার:>>>

আজকাল ভিডিও দেখার মাধ্যম হিসেবে সবার আগে ইউটিউবের কথাই মনে পড়ে নিশ্চয়। তা হবেও না কেন! ভিডিও দেখা এবং শেয়ার করার জন্য বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও শীর্ষ ওয়েবসাইট বলে কথা। তবে ভিডিও দেখার পাশাপাশি কিছু ভিন্ন কাজও করা যেতে পারে এই ইউটিউবের মাধ্যমে। এমন কিছু মজার এবং প্রয়োজনীয় সুবিধার কথা থাকছে এই প্রতিবেদনে।

 

 

তৈরি করা যেতে পারে জিফ ভিডিও

আপনি চাইলে ইউটিউবের যেকোনো ভিডিও থেকেই ১৫ সেকেন্ডের একটি জিফ বানাতে পারবেন। সে জন্য ইউটিউবে পছন্দসই যেকোনো ভিডিও চালু করে ব্রাউজারের ঠিকানার ঘরে ইউটিউব ডন আপনার নির্বাচিত ভিডিও থেকে।

 

 

ভিডিও শেয়ার করুন যতটুকু চান

একটি ভিডিওর কোনো নির্দিষ্ট অংশ আপনি শেয়ার করতে চাইছেন। সে জন্য অনেকে ভিডিও ডাউনলোড করে কেটেকুটে কিংবা আবার অনেকে পুরোটাই শেয়ার দেন। তবে এমন ঝামেলা এড়াতে ইউটিউব আপনার জন্য ভিডিও চালু হওয়ার সময় নির্দিষ্ট করে দেওয়ার সুবিধা রেখেছে। সে জন্য কোনো ভিডিওর শেয়ার বোতামে চাপলেই এর নিচে থাকা ‘স্টার্ট-এট’ থেকেই চালুর সময় ঠিক করে নিতে পারবেন।

 

 

গাইতে পারেন পছন্দের গান

অনেকেই গুনগুন করে গান গাইতে পছন্দ করেন। আর সেই সঙ্গে আবহ সংগীত (ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক) হলে তো আরও ভালো হয়। সেই সুবিধাটা নিতে পারেন ইউটিউব থেকেই। ইউটিউবে কোনো গানের শুধু সংগীতের সঙ্গে গানের কথাও পাওয়া যায়, যাকে বলে কারাওকে (Karaoke)। পছন্দের গানের নাম ইউটিউবে লিখে খোঁজার সময় ওই নামের আগে কারাওকে লিখে দিন। তাহলে গানটির শুধু আবহ সংগীত ও কথার ভিডিও পাওয়া যাবে। এবার সেগুলো চালিয়ে গাইতে পারেন সঙ্গে সঙ্গেই।

 

 

বিজ্ঞাপন ঝামেলা ছাড়াই চলবে ইউটিউব

প্রতি মাসে নির্দিষ্ট টাকা পরিশোধ করে বিজ্ঞাপনবিহীন ভিডিও দেখার সুবিধা রয়েছে ইউটিউবে। এ ছাড়া ইউটিউবের টিভি মোড বিনা মূল্যে দেখা যাবে। স্মার্ট টিভিতে যে ইউটিউব দেখা যায়, সেটি দেখতে চাইলে ইউটিউব ডটকমের পর টিভি (youtube.com/tv) লিখে দিলেই ইউটিউব টিভি চালু হয়ে যাবে।

 

 

৩৬০ ডিগ্রি ভিডিও দেখা যায়

আজকাল ৩৬০ ডিগ্রি ভিডিওর জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ভার্চ্যুয়াল রিয়েলিটির মাধ্যমে দেখা যায় এ ভিডিও। চাইলে ৩৬০ ডিগ্রি ভিডিওর স্বাদ ইউটিউব থেকেও নিতে পারেন। ৩৬০ ভিডিও লিখে খোঁজ করলেই পেয়ে যাবেন এ ধরনের ভিডিও।

 

 

কি-বোর্ড শর্টকাট

যাঁরা কম্পিউটারে ইউটিউব চালান, তাঁরা কিছু শর্টকাট ব্যবহার করে ইউটিউবকে আরও সহজ করে নিতে পারেন। যেমন কি-বোর্ডের J, K, L অ্যারো কি হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। তবে এ ক্ষেত্রে ভিডিও ৫ সেকেন্ডের বদলে ১০ সেকেন্ড সামনে পেছনে নেওয়া যাবে। এ ছাড়া ভিডিও শব্দহীন করতে M এবং F দিয়ে পূর্ণ পর্দা করতে ব্যবহার করা যাবে।